উল্টো পথে ঢাবির বাস, মৃত্যু এক পথচারীর

ঢাবি প্রতিবেদক ।।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের টঙ্গী-গাজীপুর রুটের ‘ক্ষণিকা’ বাসের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোহাম্মদ আলামিন টুটুল (২৪) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি বিজয় সরণির আওলাদ হোসেন মার্কেটে অবস্থিত সিএসএল নামে একটি বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি করতেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনের সড়কে বাসটি টুটুলকে ধাক্কা দেয়। বাসের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতাল ঘুরে রাত সাড়ে ৯টার দিকে মালিবাগের একটি বেসরকারি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় টুটুলের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় বাসের চালক বজলুর রহমানকে তেজগাঁও থানা পুলিশ আটক করা হয়েছে। ওই থানার সাব ইন্সপেক্টর (এসআই) হাবিবুর রহমান বলেন, বাসটির ধাক্কায় মোহাম্মদ আলামিন পায়ে ও মাথায় আঘাত পান। কয়েকটি হাসপাতাল ঘুরে মালিবাগ সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের আত্মীয়রা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা বলেন, বিকেল ৪টায় বাসটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল থেকে ছেড়ে ফার্মগেট আসে। এ পথে দীর্ঘক্ষণ জ্যামে বসে থাকায় ফার্মগেটের পরে ড্রাইভার রং সাইডে যেতে শুরু করেন এবং বিজয় সরণিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনের সড়কে আলামিন টুটুলকে ধাক্কা দেয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ও টুটুলের সহকর্মীরা মিলে তাকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। ঢামেকে আনা হলে কিছু টেস্ট করিয়ে আইসিইউতে রাখতে বলেন চিকিৎসক। কিন্তু ঢামেকে আইসিইউ খালি না থাকায় মালিবাগের সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজে নিয়ে গেলে সেখানে তাঁর মৃত্যু হয়।

ঢাকা মেট্রো-ব ১৫-৬২০৩ নম্বরের বিআরটিসির দ্বিতল বাসটি (ক্ষণিকা) ভাড়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বহন করত।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.