২ সপ্তাহের মধ্যে মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো শুরু হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশ থেকে ২ সপ্তাহের মধ্যে মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। এছাড়া, ধাপে ধাপে কয়েক লাখ শ্রমিক পাঠানো হবে বলেও জানান মন্ত্রী।কয়েকটি দেশ সফর শেষে দেশে ফিরে বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

২০১৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়া সরকার হঠাৎ করেই বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেয়া বন্ধ ঘোষণা করে। এর প্রায় সাড়ে তিন বছর পর কর্মী পাঠানোর ব্যাপারে মালয়েশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের সমঝোতা হয়। এ বছরের ২ জুন ঢাকায় যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে শ্রমবাজার খোলার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়।মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মী পাঠাতে ৭৮ হাজার ৯৯০ টাকা খরচ নির্ধারণ করা হয়েছে।

সম্প্রতি মালয়েশিয়া সফরে করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন। বুধবার তিনি কুয়ালালামপুরে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকোবের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

সাক্ষাতে তারা বাংলাদেশি কর্মী নিয়োগসহ পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন এবং আগামী দিনে দুই ভ্রাতৃপ্রতিম দেশের মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক আরও জোরদার করার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন।

এদিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, ২০৩০ সালের এক্সপোতে সৌদি আরবকে ভোট দেবে বাংলাদেশ। দেশটির বাদশাহ ঢাকাকে চিঠি পাঠিয়েছেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, জ্বালানির ব্যাপারে এখনো কোনো নির্দেশনা আসেনি। তবে, ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার সঙ্গে দীর্ঘকালীন জ্বালানি উৎপাদনে চুক্তি বিষয়ে ড্রাফট চালাচালি চলছে।

তিনি বলেন, জ্বালানি আমদানির ক্ষেত্রে একক অঞ্চলের ওপর নির্ভর করে না থেকে বিভিন্ন উৎসের দিকে নজর দেয়া জরুরি।

এসময় মোমেন বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে পাকিস্তানকে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.