ভালোবেসে বিয়ে, বছর না ঘুরতেই ভাড়া বাসায় মিলল বশেমুরবিপ্রবি ছাত্রীর মরদেহ

গোপালগঞ্জ প্রতিবেদক ।।

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের  (বশেমুরবিপ্রবি) এক নারী শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। নিহত নোভা ইয়াসমিন আনিফারাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন ।গ্রেফতারকৃত স্বামী মো. রাসেলের বাড়ি   ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলায় ।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে গোপালগঞ্জ শহরের নবিনবাগ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। বিয়ের পর থেকেই তিনি ঐ এলাকায় স্বামীর সাথে বাসা নিয়ে ভাড়া থাকতেন। তার স্বামী মো. রাসেল একই বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি বিভাগের ২০১৬-১৭ বর্ষের শিক্ষার্থী।

মেয়ের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, করোনাকালীন সময়ে তারা প্রেমের সূত্রে জড়ান। পরে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ঐ ছেলের সাথে তার বিয়ে হয়। তবে বিয়ের বিষয়টি মেয়ের পরিবার জানলেও, ছেলের পরিবার কিছুই জানায়নি রাসেল। তবে তার স্বামীর সাথে তাদের এলাকার এক মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ও প্রায়ই তার স্ত্রীকে মানসিক নির্যাতনের বিষয়ে অভিযোগ করেন তারা।

এ বিষয়ে স্বামী মো. রাসেল বলেন,  গত বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারি ভালোবেসে পরিবারকে না জানিয়ে নোভা ও রাসেল বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।  পরে মার্চ মাস থেকে তারা নবীনবাগ এলাকায় ওই ভাড়া বাসায় প্রায় এক বছর বসবাস করে আসছিলেন। কয়েকদিন হলো অন্য একটি মেয়ে তার (রাসেল) মোবাইলফোনে ম্যাসেজ ও ফোন দিয়ে বিরক্ত শুরু করেন। বিষয়টি নিয়ে স্ত্রী নোভার সঙ্গে তার ভুল বোঝাবুঝি হয়।

এ বিষয়ে প্রক্টর ড. মো. কামরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমরা জানার পরেই ঘটনাস্থলে যাই। তবে মেয়ের পরিবার এখনও গোপালগঞ্জে আসেনি। তারা আসলে আলোচনা তাদের সাথে সাপেক্ষে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

এ বিষয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় তদন্ত কর্মকর্তা শীতল চন্দ্র পাল বলেন, আমরা বিষয়টি জানার পরে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের পাঠিয়েছি।  তার স্বামীকে তদন্তের সুবিধার্থে  আমরা পুলিশি হেফাজতে নিয়েছি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট ও তার স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে আইন অনুযায়ী পরবর্তীতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে৷

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.