আমানুল্লাহ

মুচলেকায় ক্ষমা পেলেন ঢাবি শিক্ষক আমানুল্লাহঃ ফেসবুকে পোস্ট

ঢাবি প্রতিবেদকঃ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থি শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দলের নেতা ড. এএসএম আমানুল্লাহর জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক সংক্রান্ত একটি ফেসবুক পোস্ট আমলে নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

কি করেছিলেন আমানুল্লাহ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও বিএনপিপন্থী শিক্ষক নেতা এএসএম আমানুল্লাহর ফেসবুক পেজে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক নিয়ে একটি ‘মনগড়া ও ভিত্তিহীন’ পোস্টের বিষয়ে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন জিয়া রহমানের একটি প্রতিবেদন গতকালের সিন্ডিকেট সভায় উত্থাপন করা হয়। পরে সভায় মুচলেকার শর্তে আমানুল্লাহর ক্ষমার আবেদন মঞ্জুর করা হয়।

আরও পড়ুন

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সিন্ডিকেট সভা মনে করে, তার ফেসবুক পোস্ট পাঠ্যপুস্তক, সরকারের শিক্ষানীতি ও ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ন করার একটি অপপ্রয়াস। তিনি ইতিমধ্যে তাঁর কৃতকর্মের জন্য দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমাপ্রার্থনা করেছেন। ভবিষ্যতে এ ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন কর্মকাণ্ড ও আচরণ করবেন না- এই মর্মে লিখিত মুচলেকা দেয়ার শর্তে তাঁর ক্ষমাপ্রার্থনার আবেদন সভায় মঞ্জুর করা হয়েছে।

মর্নিং ট্রিবিউনের অফিসিয়াল পেইজ

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সিন্ডিকেট সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ ও উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল উপস্থিত ছিলেন

Leave a Comment

Your email address will not be published.