আবারও উত্তপ্ত বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্ত

শাহরিয়ার জামান শাওন।।

গতকাল(শনিবার) মিয়ানমার থেকে ছোড়া দুটি মর্টালের গোলা এসে পড়ে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্যরেখার বাংলাদেশ সীমান্তের কাছাকাছি। সকাল সাড়ে ৯টায় গোলা দুটি বাংলাদেশ সীমানায় পড়ে বলে জানান স্থানীয়রা।
তারা বলেন, তুমব্রু সীমান্তে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর টহল অব্যাহত রয়েছে।মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এবং বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে সংঘাতকে কেন্দ্র করে রেজু আমতলীর সীমান্ত পিলার এলাকায় মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দুটি যুদ্ধ বিমান থেকে ৮-১০টি গোলা নিক্ষেপ করা হয়।
এছাড়া সীমান্তের কাছে গোলাগুলির আওয়াজও শোনা যায়।দুটি যুদ্ধবিমান ও দুটি সামরিক হেলিকপ্টার পাহাড়ি এলাকায় মর্টালের গোলা ফেলে। কিন্তু তা বাংলাদেশের জনবসতিহীন এলাকায় পড়ায় কেও ক্ষতিগ্রস্ত হয় নি।
এর আগে গত ২৮ আগষ্ট মিয়ানমার থেকে ছোড়া গোলা ঘুমধুমপাড়ায় জনবসতিপূর্ণ এলাকায় পড়লেও তা বিস্ফোরিত না হওয়ায় কেও হতাহত হয়েছিলো না। তার জন্য অবশ্য মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করা হয়েছিলো।
কোন স্বাধীন সার্বভৌম দেশের পাশে অন্য দেশ কর্তৃক সামরিক মহরা কিংবা শক্তি প্রদশর্ন দেশের সার্বভৌমত্বকে প্রশ্নের মুখে তুলে দেয় এবং সেই দেশ যদি কোন প্রতিক্রিয়াশীল ব্যবস্হা নিতে ব্যর্থ হয় তবে সেটা তার দূর্বল পররাষ্ট্রনীতির চিত্রকে দেখিয়ে দেয়। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন সামরিক এই ঘটনার শুধুমাত্র কুটনৈতিক জবাবই যথেষ্ট নয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published.