ইমতিয়াজ #News#Bd#Morningtribune#latest

অধ্যাপক ইমতিয়াজকে ঢাবির একাডেমিক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি

ঢাবি প্রতিবেদকঃ

অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সেন্টার ফর জেনোসাইড স্টাডিজের পরিচালকের পদ থেকে অব্যাহতির পর  এবার সকল প্রকার  একাডেমিক কার্যক্রম থেকেও অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

রোববার (৩০ এপ্রিল) নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের নিয়মিত সভায়  এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সভায় সভাপতিত্ব করেন।

সিন্ডিকেট ঐ সভায় অন্যান্যের মধ্যে শিক্ষা সচিব এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) ও প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) উপস্থিত ছিলেন।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ধরনের একাডেমিক কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে পারবেন না।

অধ্যাপক ইমতিয়াজের ঘটনার পিছনের কারণ

সিন্ডিকেট সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ রচিত *Historicizing 1971 Genocide: State versus Person (UPL. 2009)’ শীর্ষক গ্রন্থে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-কে অবমাননা এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগের বিষয় উদ্ঘাটনের জন্য গঠিত কমিটির সুপারিশ উত্থাপন করা হয়।

সভা মনে করে, গ্রন্থে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং মহান মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে পরিবেশিত কতিপয় তথ্য অসত্য, বিভ্রান্তিকর ও ইতিহাসের বিকৃতি। সভায়, উল্লিখিত গ্রন্থে অসত্য তথ্য পরিবেশন ও ইতিহাস বিকৃতির তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়।

এর আগে, সম্প্রতি অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদের লেখা ‘হিস্টোরাইজিং ১৯৭১ জেনোসাইড: স্টেট ভার্সেস পারসন’ বইয়ে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ আনেন বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক। এটি নিয়ে আওয়ামীপন্থী  শিক্ষক ও ছাত্রলীগ তার পদত্যাগের দাবি তোলেন।

ফেসবুক পেইজ

গ্রন্থের লেখক অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ এবং প্রকাশক ইউপিএল-কে গ্রন্থটি অবিলম্বে প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য সভা থেকে আহ্বান জানানো হয়। একইসঙ্গে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-কে অবমাননাকারী এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির সঙ্গে জড়িত ও সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়।

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন ধরনের একাডেমিক কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে পারবেন না বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

 

১ thought on “অধ্যাপক ইমতিয়াজকে ঢাবির একাডেমিক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি”

  1. Pingback: ঢাবি অধ্যাপকের প্রবন্ধে ৫৩ শতাংশ চুরির প্রমাণ, তদন্ত কমিটি গঠন

Leave a Comment

Your email address will not be published.